• শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৬:০৪ পূর্বাহ্ন
Headline
লামায় রোহিঙ্গা শিশুর হাতে পাচঁ বছরের কন্যা শিশু খুন লামায় বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন! ঘাতক বড় ভাই আটক লামায় তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় আটক জ্যোতিময় চাকমা লামায় বাথরুমের পানির বালতিতে ডুবে কন্যা শিশুর মৃত্যু কোয়ান্টাম কসমো স্কুল ও কলেজ থেকে এবছর পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পেয়েছে ২২ জন ছাত্র লামা শিক্ষক কর্মচারী কো-আপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লি: এর নির্বাচনী তফশীল ঘোষনা স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যায় শত কোটি টাকার ক্ষয় ক্ষতি, সাংবাদিকদের সাথে পৌর মেয়রের  মতবিনিময় লামা একতা মহিলা সমিতির আয়োজনে ডাব্লিউ এফপির শিশু খাদ্য বিতরণ লামায় মাতামুহুরী নদীতে ভাসমান অজ্ঞাত লাশ উদ্ধার Picking Virtual Data Room Alternatives

লামায় বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন! ঘাতক বড় ভাই আটক

সাব এডিটর / ৫৭৭ Time View
Update : মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

বেলাল আহমদ,নিজস্ব প্রতিনিধি:-

বান্দরবানের লামা উপজেলায় বড় ভাইয়ে লাঠির আঘাতে ছোট ভাই নিহত হয়েছে।১৭সেপ্টেবর(রবিবার)রাতে বড় ভাই মো. ইউনুছের (২৪) লাঠির আঘাতে ছোট ভাই মো. আব্দুর রশিদ (২২) নিহত হয়েছেন। হত্যার পর ছোট ভাইয়ের লাশ পাহাড়ে গুম করে রাখেন বড় ভাই ইউনুছ। সোমবার গভীর রাতে ঘাতক মো. ইউনুছ নিজেই আবার স্বজনদের সহায়তায় নিহত ভাই আব্দুর রশিদের লাশ উদ্ধার করেন। পরে পুলিশি জিঙ্গাসবাদের এক পর্যায়ে ছোট ভাইকে হত্যার ঘটনা স্বীকার করেন বড় ভাই ইউনুছ। নিহত আব্দুর রশিদ ও ঘাতক ইউনুছ ফাইতং ইউনিয়নের মধ্যম রাঙ্গাঝিরি পাড়ার বাসিন্দা আবুল কালামের ছেলে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মধ্যম রাঙ্গারঝিরি বাসিন্দা আবুল কালামের ৪ ছেলে ও এক মেয়ে। বড় ছেলে মো. ফিরোজ (৪০) সৌদি প্রবাসী। ছোট তিন ছেলের কাছে বিভিন্ন সময় প্রবাসী বড় ভাই মো. ফিরোজ পারিবারিক কাজে টাকা পাঠাতেন। এসব টাকার হিসাব নিয়ে রবিবার রাত পৌনে দশটার দিকে মধ্যম রাঙ্গারঝিরি সড়কের উপর ইউনুছ ও আব্দুর রশিদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ইউনুছ ক্ষীপ্ত হয়ে লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাত করলে ঘটনাস্থলে মারা যান ছোট ভাই আব্দুর রশিদ। পরে আব্দুর রশিদের লাশ পাশের পাহাড়ে  লুকিয়ে রাখেন বড় ভাই ঘাতক মো. ইউনুছ। এদিকে রাতে আব্দুর রশিদ ঘরে না ফিরলে পরদিন সোমবার রাতে স্বজনদের সহায়তায় ওই পাহাড় থেকে আব্দুর রশিদের লাশ উদ্ধার করেন এবং পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেন। জিঙ্গাসাবাদের এক পর্যায়ে ছোট ভাই আব্দুর রশিদকে লাঠি দ্বারা আঘাত করে খুন করেন বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেন বড় ভাই মো. ইউনুছ। পরে পুলিশ ঘাতক ইউনুছ কে আটক করে উপজেলা সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে লামা থানা পুলিশের  অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শামীম শেখ বলেন, টাকার হিসাব নিয়ে বড় ভাই ইউনুছের লাঠির আঘাতে আব্দুর রশিদ নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় ঘাতক মো. ইউনুছকে আসামী করে হত্যা মামলা রুজু করা হয়েছে। নিহত আব্দুর রশিদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের  জন্য বান্দরবান সদর মর্গে পাঠানো হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

Categories